সুয়ারেজের হ্যাটট্রিকে উড়ন্ত বার্সা (ভিডিও সহ)

ক্রীড়া ডেস্ক: কোপা দেল রে’র সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে এমএনএস খ্যাত লিওনেল মেসি, নেইমার ও লুইস সুয়ারেজকে বিশ্রাম দিয়েছিলেন বার্সেলোনা কোচ লুই এনরিক। ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে তারকাদের অনুপস্থিতিতেও সেই ম্যাচে অপরাজিত থাকার আগের রেকর্ড ভেঙেছে বার্সা। তবে বিশ্রাম দেয়ার এই কৌশলটা যে কাজে লেগেছে সেটাই যেন প্রমাণ করলেন মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা। বিশ্রাম থেকে ফিরে জ্বলে ওঠেছেন তিনজনই। তবে সুয়ারেজ যেন একটু বেশি উড়ন্তই। রোববার রাতে ন্যু ক্যাম্পে সুয়ারেজের হ্যাটট্রিকে সেল্টা ডি ভিগোকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে কাতালানরা। গোল করেছেন মেসি-নেইমারও।

এই জয়ে লা লিগায় শীর্ষস্থান সংহত হল বার্সার। ২৩ ম্যাচে বার্সার অর্জন ৫৭ পয়েন্ট। এক ম্যাচ বেশি খেলে ৫৪ পয়েন্ট দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। দলটির নগর প্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের অর্জনও সমান ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট। তবে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় রোনালদো-বেনজেমাদের অবস্থান তিন নম্বরে।

বার্সার দুর্দান্ত এই জয়ের দিনে মেসি একটা মাইলফলক ছোয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন। তবে নিজের মাইলফলকের চেয়ে সতীর্থের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করাটাকেই বড় করে দেখলেন। তাই পেনাল্টি পেয়ে নিজে কিক নিলেও গোলের সুযোগ করে দেন সুয়ারেজকে। অবশ্য বার্সা টানা অপরাজিত ম্যাচের সংখ্যাটা আরো একধাপ বাড়িয়ে নিয়েছে। ভ্যালেন্সিয়ার সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে পেপ গার্দিওলার ২০১০-১১ মৌসুমে গড়া টানা ২৮ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড ভেঙেছিলেন এনরিক। অপরাজিত থাকার সংখ্যাটা এবার ৩০-এ নিয়ে গেলেন তিনি।

খেলা ২৮ মিনিটে অবশ্য গোলের সূচনা করেছিলেন মেসি নিজেই। ৩৯ মিনিটে ম্যাচে সমতা ফেরায় সেল্টা। পেনাল্টি থেকে গোল করেন জন গুইয়েদেত্তি। প্রথমার্ধটা তাই ১-১ গোলের সমতায়ই শেষ হয়। এরপর দ্বিতীয়ার্ধে সুয়ারেজের টানা তিন গোল। ৫৯, ৭৫ ও ৮১ মিনিটে এই তিন গোল করেন। এর মধ্যে ৮১ মিনিটে মেসির মহানুভবতায় তার হ্যাটট্রিক পূর্ণ হয়। এরপর ৮৪ মিনিটে র‌্যাক্টিক ব্যবধান বাড়ান আরো একদফা। অবশেষে যোগ করা সময়ে নেইমারের গোলে ৬-১ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সা।

ভিডিওতে দেখুন এমএনএসের চোখ ধাঁধাঁনো গোলগুলো

সূত্র- বাংলামেইল

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like