একদিন আগেই মারা যাওয়া শিশুকে ভর্তি রেখে টাকা আদায়!

বাংলামেইল : রাজধানীর জিগাতলার একটি হাসপাতালে মৃত রোগীকে ভর্তি রেখে পরিবারের কাছ থেকে অর্থ আদায়সহ বিভিন্ন অপরাধে সাড়ে ১১ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন র‌্যাবের-২ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার জিগাতলার জাপান বাংলাদেশ ফেন্ডশিপ মেডিকেল সার্ভিস হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে এ জরিমানা করেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন।

এছাড়া একইদিন চকবাজারের বেগমগঞ্জ বাজারে পৃথক অভিযান চালিয়ে নকল প্রসাধনী মজুদ ও বিক্রয়ের অপরাধে দুইজনকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন র‌্যাব-১০ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত।

র‌্যাব-২ এর সহকারী পুলিশ সুপার ইয়াসির আরাফাত জানান, র‌্যাব-২ এর উপ-পরিচালক ড. দিদারুল আলমের নেতৃত্বে জিগাতলার জাপান বাংলাদেশ ফেন্ডশিপ হাসপাতালে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত দেখতে পায়- গত মঙ্গলবার ১ বছর ৪ মাস বয়সের একটি শিশু আইসিইউতে (নিবির পরিচর্যা কেন্দ্র) মারা গেলেও গতকাল বুধবার পর্যন্ত তাকে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়ার কথা বলে পরিবারের কাছ থেকে বিপুল অংকের টাকা নেয়া হচ্ছে।

এছাড়াও অনভিজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে শিশু রোগের চিকিৎসা করা, মেডিকেল বোর্ড গঠনের কোনো ব্যবস্থা না থাকা, বায়োকেমিস্ট না থাকা, মেডিকেল টেকনোলজিস্টের কোনো সার্টিফিকেট না থাকা, এইচআইভি (এজি+) পরীক্ষা করার কথা বললেও পরীক্ষা করার প্রয়োজনীয় মেশিন না থাকাসহ আরো অনেক অনিয়ম দেখতে পান আদালত। এসব অভিযোগে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকের ৬ জনকে আটক করে সাড়ে ১১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

এদিকে র‌্যাব-১০ এর সহকারী পুলিশ সুপার মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, পুলিশ সুপার রেজাউল করিমের নেতৃত্বে বেগমগঞ্জ বাজারের মেডাস কসমেটিকস ট্রেডিং ও সোয়ারীঘাটে একটি নামবিহীন কারখানায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় নকল কসমেটিকস তৈরি, মজুদ ও বিক্রির অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার শাকিল আকবর টুটুলকে ২ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদণ্ড দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আনিসুর রহমান।

এছাড়া একই অভিযোগে সোয়রীঘাটের অপর একটি নামহীন কারখানার ম্যানেজার স্বপন বক্সকে ১ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ২ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like