পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের বিচার হবে -প্রধানমন্ত্রী

বাংলামেইল : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘পদ্মা সেতু প্রকল্প নিয়ে যারা ষড়যন্ত্র করেছে তাদের বিচার হবে। এবং সে বিচার প্রচলিত নিয়মেই সম্পন্ন হবে।’

বুধবার বিকেলে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তরকালে জাতীয় পার্টির ঢাকা-৬ আসনের সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এক কথা বলেন।

পিরোজপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য মো. রুস্তম আলী ফরাজী অপর এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পদ্মা সেতু প্রকল্পের বিভিন্ন প্যাকেজের নির্মাণ কাজ তদারকির জন্য পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিয়োগ প্রক্রিয়া দুর্নীতি ষড়যন্ত্রেও অভিযোগ এনে বিশ্বব্যাংক ঋণচুক্তি স্থগিত করে। কিন্তু দুর্নীতি দমন কমিশনের তদন্তে বিশ্বব্যাংকের সে অভিযোগ ভিত্তিহীন প্রমাণিত হয়।’

তবে এক পর্যায়ে বিশ্বব্যাংক এ প্রকল্পের পুনরায় ফিরে আসার ঘোষণা দিলেও নতুন নতুন শর্ত আরোপ করে দীর্ঘসূত্রিতার পথ অবলম্বন করায় তাদের ঋণ গ্রহণ না করে আওয়ামী লীগ সরকারের সাহসী ও স্বাধীনচেতা নেতৃত্ব ও দৃঢ় সিদ্ধান্ত গ্রহণের ফলেই বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নের পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করা সম্ভব হয়।

পৃথিবীর বৃহত্তর হাইওয়ে সেতুর মধ্যে পদ্মা সেতুর অবস্থান ২৫তম। তবে নদীর উপর নির্মিত সেতুর মধ্যে পদ্মা সেতু অবস্থান প্রথম এবং ফাউন্ডেশনের গভীরতার দিক থেকেও এ সেতুর অবস্থান প্রথম বলে দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী সংসদে বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন পদ্মা বহুমুখি সেতু প্রকল্পের আওতায় পদ্মা সেতুতে ৩০ ইঞ্চি ব্যাসের গ্যাস সঞ্চালন পাইপাইল নির্মাণের পরিকল্পনা আছে।’

গ্যাস প্রাপ্তি ও পাইপলাইন নির্মাণ প্রকল্পের অর্থায়ন প্রাপ্তি সাপেক্ষে পর্যায়ক্রমে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে গ্যাস পাইপলাইন সম্প্রসারণের পরিকল্পনা আছে। দেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে গ্যাস সরবরাহের জন্য পায়রা বন্দরে একটি ল্যান্ড বেসড এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণের পরিকল্পনাও সরকার গ্রহণ করেছে জানালেন প্রধানমন্ত্রী।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like