‘ভৌতিক অগ্নিকাণ্ড’

160207104032_charfashion_fire2_640x360_shipufaraziবিবিসি : কথা নেই বার্তা নেই হঠাৎ তোরঙ্গের ভেতরের শাড়িটায় দপ করে জ্বলে উঠল আগুন।  কিংবা, আগুন ধরে গেল কাঠের চেয়ারের পায়াটায়। কিন্তু কোথা থেকে কিভাবে ঘটছে এ ঘটনা কেউ জানে না। যাকে বলে একেবারে ভৌতিক সব কাণ্ড।  এমন সব ঘটনাই নাকি গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ঘটছে দ্বীপজেলা ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার উত্তর শিবা গ্রামের ক্ষুদ্র কৃষক মোস্তফা ব্যাপারীর বাড়িতে।

মি. ব্যাপারী অবশ্য বলছেন, দিন তিনেক আগে এই আগুন জ্বলা বন্ধ হয়েছে। তবে এই খবর ছড়িয়ে পড়ায় দূর দূরান্ত থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এসে ভিড় করছে মি. ব্যাপারীর বাড়িতে।  পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে যে, মি. ব্যাপারী ও তার পরিবারের দৈনন্দিন জীবনযাত্রা বন্ধ হয়ে যাবার উপক্রম হয়েছে। তাদের সময় যাচ্ছে উৎসুক জনতার হাজারো প্রশ্নের জবাব দিতে দিতে।

এই প্রতিবেদকের সঙ্গে যখন মি. ব্যাপারীর টেলিফোনে কথা হয়, তখন স্পষ্টতই তার কণ্ঠে ছিল স্পষ্ট বিরক্তি। তিনি শুধু এটুকু বলেন, “আল্লা দিলে এই দুই তিন দিন ধরে আর আগুন লাগতেছে না”  তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, কীভাবে লাগতো আগুন?

জবাবে তিনি বলেন “হেডা আমি কইতে পারি না”। এরপরই ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন তিনি। পরে এ নিয়ে কথা হয় স্থানীয় আব্দুল্লাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইসমাইল রাসেলের সঙ্গে।  তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন এবং বলেন তিনি নিজেই আগুন জ্বলতে দেখেছেন।

তিনি বলেন, “হঠাৎ আগুন ধরে ওঠে। কিভাবে ধরে জানিনা। হঠাৎ কাঠে, ঘরের কোনায়, পোষাকে আগুন ধরে যায়। আমি নিজে দুইবার দেখেছি”।

ব্যাপারটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, থানার ওসি-সহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।  কিন্তু এর কোনও ব্যাখ্যা কেউ দিতে পারেননি।

প্রতিদিন ২০/৩০ বার এভাবে আগুন ধরে ওঠে উল্লেখ করে মি. রাসেল বলেন, তার ধারণা এটা অতিপ্রাকৃত কোনও কারণে ঘটে থাকতে পারে। এই ঘটনা ছড়িয়ে পড়ার পর প্রতিদিন বাড়িটিতে দশ থেকে পনের হাজার উৎসুক জনতা ভিড় করছেন বলেও জানান চেয়ারম্যান।

এমনকি এই প্রতিবেদনের জন্য ওই এলাকায় বিভিন্ন জনের সঙ্গে যখন যোগাযোগ করা হচ্ছিল তখনও মোস্তফা ব্যাপারীর বাড়ীতে কয়েকশ মানুষ জড়ো হয়ে রয়েছে।  “কোনদিন ৫০ হাজার লোকের সমাগমও ওই বাড়িতে হয়েছে”, বলছিলেন চেয়ারম্যান।

“অনেকেই দেখেছে। একদিন সাংবাদিক ভাইয়েরা গেছে। গিয়ে তারা বলে, কই কোনও আগুন তো কোথাও নেই। এটা বলার সাথে সাথেই পাশে এক মহিলার বোরকায় আগুন ধরে উঠেছে”।

চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনামুল হক বলেন, তারা ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু তারা সরাসরি আগুন জ্বলে ওঠা দেখেনি, তবে আগুন যে সেখানে জ্বলে তার নমুনা তারা দেখতে পেয়েছেন।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like