জিকা ঢুকে পড়ল ইউরোপেও! এ দেশেও কি তাহলে আসতে পারে ?

স্বাস্থ্য ডেস্ক:  জিকার কবলে এবার ইউরোপের গর্ভবতী! এক স্প্যানিশ গর্ভবতী মহিলার দেহে পাওয়া গেছে জিকা ভাইরাস। সম্ভবত ইউরোপে প্রথম কোনও গর্ভবতী আক্রান্ত হলেন জিকা ভাইরাসে।

সম্প্রতি অন্য দেশ থেকে ঘুরে এসেছেন এমন সাত জনের পরীক্ষা করা হলে তখনই ওই মহিলার শরীরে পাওয়া যায় জিকা ভাইরাস। ওই সম্প্রতি কলম্বিয়া থেকে ফিরে আসায় সেখান থেকেই ভাইরাস তার শরীরে প্রবেশ করেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, জিকা ভাইরাসের সংক্রমণ গর্ভবতীতের ক্ষেত্রে সব থেকে বেশি মারাত্মক। ৮০ শতাংশ ক্ষেত্রে রোগের কোনও লক্ষণ দেখা যায় না। ফলে গর্ভবতী মহিলার পক্ষে আরও মুশকিল হয়ে পরে রোগ নির্বাচন করা।

এই ভাইরাসের প্রভাব গিয়ে পড়ে গর্ভে থাকা শিশুটির ওপর। সেই কারণে গর্ভবতী মহিলাদের এখন জিকা আক্রান্ত দেশগুলিতে এখন ভ্রমন না করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে শিশুটির ওপর কোনো প্রভাব পড়েছে কিনা সেবিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

ইউরোপে প্রথম হলেও ব্রাজিলে প্রায় ৪ হাজার গর্ভবতী মহিলা জিকায় আক্রান্ত হয়েছেন। সেক্ষেত্রে দেখা গেছে সদ্য জন্মানো শিশুর মাথা সাধারণের তুলনায় ছোট এবং ব্রেনের বৃদ্ধি পুরোপুরি ঘটেনি।

হু-এর পক্ষ থেকে গর্ভবতী মহিলাদের বাড়তি সতর্কতা নিতে বলা হয়েছে। তাঁদের আশঙ্কা ইবোলার মতোই মহামারীতে পরিণত হবে জিকা। এবছরে প্রায় ৪ মিলিয়ন মানুষ আক্রান্ত হতে পারে জিকায়।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like