সুয়ারেজের চার, মেসির হ্যাটট্রিক

ক্রীড়া ডেস্ক: লুইস সুয়ারেজের চার গোল ও মেসির হ্যাটট্রিকে ভ্যালেন্সিয়াকে উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনা। বুধবার রাতে দুই তারকার গোল উৎসবের দিন বার্সেলোনা ৭-০ গোলের জয় উৎসব করেছে। একইসঙ্গে কোপা দেল রে’র সেমিফাইনালের প্রথম লেগে বড় এই জয়ে দ্বিতীয় লেগের আগেই ফাইনাল প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেল বার্সার।

১০ জনের প্রতিপক্ষকে পেয়ে রীতিমতো নাকানি-চুবানি দিয়েছে বার্সা। এর মধ্যে আবার একটি পেনাল্টির সুযোগও মিস করেন বার্সেলোনার ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার। তথাপি বড় জয়োৎসব থেকে কাতালানদের বিরত রাখতে পারেনি প্রতিপক্ষ ভ্যালেন্সিয়া।

গ্যারি নেভিলসের ভ্যালেন্সিয়াকে ন্যু ক্যাম্পে পাত্তাই দেয়নি বার্সা। খেলার মাত্র ১২ মিনিটে সুয়ারেজ করেন দুই গোল। আর প্রথমার্ধে মেসি করেন আরো এক গোল। দুজন বাকি চার গোল করেন দ্বিতীয়ার্ধে। প্রথমার্ধের শেষ দিকে নেইমার পেনাল্টি থেকে গোলের সুযোগ মিস করেন।

তাতে অবশ্য বার্সাকে বড় জয় থেকে বঞ্চিত করতে পারেনি সফরকারিরা। দ্বিতীয়ার্ধে সুয়ারেজ ও মেসি উভয়ে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন। এই জয়ে বার্সা শেষ ১৩ ম্যাচের ১২টিতেই জয় তুলে নিতে সক্ষম হল। আর সব মিলিয়ে ২৭ ম্যাচে অপরাজিত থাকল তারা।

বড় হার সত্ত্বেও গ্যারি নেভিল অবশ্য এখনো আশাবাদী। আগামী বুধবার সেমিফােইনালের দ্বিতীয় লেগে মুখোমুখি হবে দুদল। সেখানেই তার দল ঘুরে দাঁড়াতে সক্ষম হবে বলে মনে করেন ভ্যালেন্সিয়া কোচ। অবশ্য ৭-০ তে পিছিয়ে থেকে ফাইনালে ওঠতে হলে মিরাকল কিছুই করতে হবে ভ্যালেন্সিয়াকে।

খেলার ৭ মিনিটে বার্সা এগিয়ে যায়। মাঝমাঠে আন্দ্রে গোমেজের কাছ থেকে বল নিয়ে নেইমার এগিয়ে যায়। সেই সুয়ারেজকে পাস দেন তিনি। সুয়ারেজ তা জালে জড়াতে ভুল করেননি। পাঁচ মিনিটের মধ্যে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বার্সা। সুয়ারেজই দ্বিতীয় গোল করেন। এটি কাতালানদের চলতি মৌসুমে শততম গোল।

প্রথমার্ধেই ১০ জনের দলে পরিণত হয় ভ্যালেন্সিয়া। মুস্তাফি বার্সা তারকা মেসিকে ফেলে দিলে রেফারি এই ডিফেন্ডারকে সরাসরি লাল কার্ড দেখান।  একইসঙ্গে দেন পেনাল্টিও। সেই পেনাল্টি থেকে অবশ্য গোলের সুযোগ মিস করেন নেইমার। অষ্টম স্পট কিক নিয়ে চতুর্থ্বারের মতো মিস করলেন তিনি।

মেসি ৫৮ মিনিটে করেন ব্যক্তিগত দ্বিতীয় গোল। আর হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ৭৪ মিনিটে। এরপর আবারো সুয়ারেজের পালা। প্রথম ১২ মিনিটে করেন দুই গোল। আর শেষ ১০ মিনিটে তিনি করেন আরো দুই গোল। ৮৩ মিনিটে আদ্রিয়ানোর ক্রসে ভ্যালেন্সিয়ার জাল ভেদ করেন তিনি। এতে হ্যাটট্রিক পূর্ণ হয় উরুগুইয়ান তারকার। খেলার দুই মিনিট বাকি থাকতেই তুরানের পাসে আবারো প্রতিপক্ষের জাল ভেদ করেন সুয়ারেজ।

-বাংলামেইল

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like