তারকাদের যত উদ্ভট অভ্যাস

Hollywood_Risingbd_top1453659341রাইজিংবিডি : পর্দায় নানারকম চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় করা মানুষগুলোকে মনের অজান্তেই অনেক সময় অনুকরণ করি আমরা। অনুসরণ করি তাদেরকে। তাদের খাবার, পোশাক, অভ্যাস- কতকিছুর দিকেই না আমাদের আকর্ষণ থাকে। কিন্তু বাস্তবে এই অসাধারণ সুন্দর আর ব্যাক্তিত্বপূর্ণ অভিনেতা-অভিনেত্রীদের জীবনেও রয়েছে কিছু বাজে দিক। অনেক অদ্ভুত আর উদ্ভট ব্যাপার। সাধারণ মানুষের চাইতে অনেকটা আলাদাভাবে নিজেদের ব্যাক্তিগত জীবনে কিছু গোপন আর অন্ধকার কথা পুষে রাখেন তারা। তবে আজ আর সেই অপ্রকাশিত ব্যাপারগুলো নয়, বরং হলিউডের বহুল পরিচিত কিছু বিখ্যাত তারকার প্রকাশিত কিন্তু অদ্ভুত অভ্যাস নিয়ে জানাবো। এই যেমন তেলাপোকা কিংবা জোঁকের কথাই ধরুন না! কোনো স্বাভাবিক মনুষ কী এই প্রাণীগুলোকে ভালোবাসতে পারে? চলুন জেনে নিই এমন কয়েকজন বিখ্যাত তারকার উদ্ভট অভ্যাসের কথা।

১. ডেমি মুর : জোঁক- শব্দটা শুনলেই বেশিরভাগ মানুষের মুখটা কুঁচকে যায়। কী বিচ্ছিরি দেখতে প্রাণীগুলো। ওগুলোকে ভালো লাগবেই বা কী করে! কিন্তু শুনলে অবাক হবেন যে, এই জোঁক নামক প্রাণীটিকেও পছন্দ করেন অনেক মানুষ। পছন্দ বলতে শুধু পছন্দ নয়, এর নানা ক্ষমতা সম্পর্কেও কিছু উদ্ভট ধারণা রয়েছে অনেকের। অনেকের মতে জোঁক মানুষের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। আর এই অনেকের ভেতরে পড়েন হলিউডের বিখ্যাত তারকা ডেমি মুরও। অভিনেত্রী হিসেবে ডেমি মুরের সুখ্যাতি রয়েছে হলিউড ছাপিয়েও বিশ্বের সব স্থানে। কিন্তু এই অসাধারণ সুন্দরী অভিনেত্রীর গা শিউরে ওঠার মতো একটি অভ্যাস হচ্ছে নিজের শরীরে জোঁক ছেড়ে দেওয়া? শুনতে ভয়ংকর মনে হলেও মাঝে মাঝেই নিজের শরীরে রক্তচোষা জোঁক ছেড়ে দেন ডেমি মুর। তবে এদের খুব বেশি রক্ত পান করতে দেননা তিনি। যতটুকু দরকার ঠিক ততটুকুই রক্ত জোঁকদেরকে পান করান এই অভিনেত্রী।

২. নিকোলাস কেজ : ডেমি মুরের মতো জোঁকদেরকে খাওয়ানোর অভ্যাস না থাকলেও নিজের খাওয়ার ব্যাপার প্রচন্ড উদ্ভট রকমের একটি অভ্যাস রয়েছে হলিউডের আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা নিকোলাস কেজের। নিজের খাবার ব্যাপারে সবসময় একটা নিয়ম মেনে খাবার বাছাই করেন তিনি। বেশ অদ্ভুত প্রক্রিয়ায় নিজের খাবার বাছাই করেন অভিনেতা নিকোলাস কেজ। আর সেটি হচ্ছে খাবার হতে যাওয়া প্রাণীদের যৌনসঙ্গমের পদ্ধতি। তার কেবল সেই প্রাণীদের খেতেই ভালো লাগে যারা তার ভাষায়- মর্যাদাপূর্ণ যৌনপদ্ধতি অবলম্বন করে। এক্ষেত্রে তিনি মাছ, পাখি থেকে শুরু করে পোকামাকড় খেতেও দ্বিধা করেননা। তার মতে মাছেরা যৌন সম্পর্কের ক্ষেত্রে মুখ ব্যবহার করে। তেমনি পাখিরাও। আর ঠিক এই কারণেই শূকরকে কখনোই পাতে তোলেননা নিকোলাস। শুধু এই একটা অভ্যাসই নয়, নিকোলাস কেজের রয়েছে মানুষের খুলি সংগ্রহের অভ্যাসও। কিংবা বলা যায় শখ! তার বাসায় থরে থরে সংগ্রহ করা মৃত মানুষের খুলি রয়েছে।

৩. অ্যাঞ্জেলিনা জোলি : মানুষ, বিশেষ করে নরীরা যেখানে তেলাপোকা দেখলেই চিত্কার করে ওঠে, হলিউডের অন্যতম অ্যাকশন গার্ল অ্যাঞ্জেলিনা জোলি তখন আরো বেশি কাছে চলে যান সেগুলোর। খুব কাছ থেকে থেকে দেখতে পছন্দ করেন তিনি তেলাপোকাদেরকে। আর এর একমাত্র কারণ হচ্ছে তেলাপোকার প্রতি তার ভেতরে থাকা ভালোবাসা। শুনতে একটু অন্যরকম হলেও সত্যিই তেলাপোকাদেরকে বেশ পছন্দ করেন জোলি। তাদেরকে ‘সেক্সি’ প্রাণী বলেও অভিহিত করেন এই অভিনেত্রী।

৪. জনি ডেপ : পৃথিবীর লাখো নারীর মন যেখানে কেড়ে নিয়েছেন পাইরেটস অব দ্য ক্যারেবিয়ানের এই তারকা, সেখানে কোনো একটা নারী নয়, বরং হাজার হাজার নারীকে নিয়েই কাটে তার সারাদিন। আর এই নারীরা আর কেউ নয়, বরং বার্বি ডল। বার্বি ডলের প্রতি প্রচন্ড আকর্ষণ কাজ করে জনি ডেপের। পৃথিবীর বিভিন্ন অংশ থেকে একে একে সব ধরনের বার্বি ডল নিজের কাছে জড়ো করেছেন এই তারকা। বর্তমানে জনি ডেপের কাছে রয়েছে প্রায় ১ মিলিয়ন বার্বি ডল। প্রতিদিনই এদের সঙ্গে কিছুটা সময় পার করতে ভালোবাসেন এই হার্টথ্রব তারকা।

৫. লেডি গাগা : হলিউডের কথা বাদই দিন, লেডি গাগার কণ্ঠের চাইতেও যে জিনিসটি পুরো বিশ্বে সবচাইতে বেশি পরিচিত আর জনপ্রিয়, সেটি হচ্ছে তার কর্মকান্ড। নিজের নানারকম অদ্ভুত কাজকর্ম আর অভ্যাসের মাধ্যমে সবসময়ই সবাইকে মাতিয়ে রাখেন এই তারকা। তবে এই তারকার আর সব অভ্যাসগুলোর ভেতরে সবচাইতে অদ্ভুত অভ্যাসটি হচ্ছে তার কুসংস্কার। নিজের ভেতরে থাকা অদ্ভুত এক কুসংস্কারের জন্যেই মাঝে মাঝে নিজের বিশেষ কিছু অর্জনের দিনের পেশাক আর মেকআপ বদলাননা এই তারকা। বরং সেটাকে নিয়েই ঘুমোতে যান। এতে করে নিজের ভেতরেও একরকম ভালোলাগা কাজ করে বলে জানান লেডি গাগা।

 

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like