১৯ বছর আগে মৃত সেলেব আসলে লুকিয়ে!

48326-er

বিনোদন ডেস্ক: সেপ্টেম্বরের ১৯৯৭ সালে তিনি মারা গিয়েছিলেন দুষ্কৃতিদের ছোঁড়া বন্দুকের গুলিতে। সঙ্গীত জগতে জিমি হেনড্রিক্স, কার্ট কোভাইন, জেমন ডেন, মেরিলিন মনরোর মতো শিল্পীর নামের পাশেই যোগ হয় তাঁর নাম। বছর কুড়ি আগে মৃত র‌্যাপ সুপারস্টার টুপাক শাকুর মৃত্যুর পর কিংবদন্তিতে পরিণত হন। সেই টুপাক শাকুর নাকি মোটেও মারা যাননি। তিনি নাকি নিজেকে আড়াল করে রেখেছেন। নতুন গানের অ্যালবাম নিয়ে আগামী মাসে ফিরবেন শাকুর। এক মার্কিন ওয়েব পোর্টালে এমনই দাবি করা হয়েছে। রিহানের সঙ্গে তাঁর একটি ছবিকে প্রমাণ হিসেবে দেকানো হয়েছে। টুপাক যখন মারা যান রিহানে তখন বেশ ছোট। কিন্তু দেখা যাচ্ছে রিহানার একেবারে হালের রূপে শাকুরের পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছেন।

৭ সেপ্টেম্বর,১৯৯৭। গুলিবিদ্ধ হওয়ার ছয়দিন পর টুপাক শাকুর মৃত্যুবরণ করেন। নানা তদন্ত, সন্দেহ, জিজ্ঞাসার পরও জানা যায়নি কে বা কারা তার এই খুনের সঙ্গে জড়িত। টুপাক নিয়ে এখনও নানা কল্পকাহিনী। তার অনেক ভক্ত এখনও বিশ্বাস করেন কিউবার কোন এক দ্বীপে কিউবান চুরুট ফুঁকছেন এই বিশ্বখ্যাত র‌্যাপার। আবার অনেকের বিশ্বাস, স্বর্গের উদ্যানেই কোন এক বৃক্ষের ফুল হয়ে ছড়িয়ে দিচ্ছেন নিজের শোভা এবং স্নিগ্ধতা।

সেই রাতের ঘটনার পর হতে গত ১৯ বছরে লাসভেগাসের সেই গুলিবর্ষণ নিয়ে অনেক গল্পই শোনা যায়। টুপাক শাকুরের মৃত্যু নিয়ে বের হয় অসংখ্য বই, ম্যাগাজিন। সাংবাদিকরা তাদের অনুসন্ধান রিপোর্ট খুঁজে ফেরেন নানা রহস্যে এবং চক্রান্তে। এমনকি তার বহু ভক্ত এখনও বিশ্বাস করেন টুপাক মৃত নয় বরং কিউবা, নিউজিল্যান্ড, তাসমানিয়ায় তিনি বেঁচে আছেন।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like