মাস্টার নুরুচ্ছাফার হত্যাকান্ডে জড়িত কেউই ছাড় পাবে না : এমপি কমল

MP Komolসংবাদ বিজ্ঞপ্তি, ১৩ জানুয়ারি : মাস্টার নুরুচ্ছাফার হত্যাকান্ডে জড়িত কেউই ছাড় পাবে না বলে মন্তব্য করেছেন আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি। বুধবার বিকেলে কক্সবাজারের রামু উপজেলার ঈদগড়ে সম্প্রতি দূর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত মাস্টার নুরুচ্ছাফার পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানাতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।
এর আগে সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি ও রামু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজুল আলমসহ রামু উপজেলার বিভিন্ন আওয়ামী অঙ্গসংগঠনের নেতারা উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের মোহাম্মদ শরীফ পাড়ায় নিহত মাস্টার নুরুচ্ছাফার কবর জিয়ারত করেন। পরে নিহত মাস্টার নুরুচ্ছাফার বাড়িতে যান নেতৃবৃন্দ। এমপি কমল নুরুচ্ছফার বাড়িতে পৌঁছুলে স্বজনদের আহাজারিতে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা ঘটে। সেখানে উপস্থিত হাজারো নারী-পুরুষ সমস্বরে নুরুচ্ছাফার হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।
এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম বলেন, অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা প্রদান করা হবে।  Exif_JPEG_420

রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মোহাম্মদ কায় কিসলু বলেন, অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে সব অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে। এজন্য এলাকাবাসীকে পুলিশের পাশে থাকার অনুরোধ জানান তিনি।
নুরুচ্ছফার বাড়ি পরিদর্শন ও স্বজনদের সমবেদনা জানানোর পর ঈদগড় বাজারে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি। মাস্টার নুরুচ্ছফার হত্যাকারীদের শাস্তির দাবীতে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব রাখেন মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক রেজা।
ইউনিয়ন যুবলীগের প্রচার সম্পাদক ইব্রাহিম খলিলের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রামু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মোহাম্মদ কায় কিসলু, প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাঙালি, প্রবীণ শিক্ষক মুক্তিযোদ্ধা ফরিদ আহমদ, খুনিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মাবুদ, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন কোম্পানি, গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম চৌধুরী, রামু উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নিতীশ বড়–য়া, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি নুরুল কবির হেলাল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক।
এ সময় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ সম্পাদক আবু বক্কর ছিদ্দিক, রামু ব্যবসায়ি সমিতির সদস্য আজিজুল হক আজিজ, সাংবাদিক কামাল শিশির, মক্কা স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ইব্রাহিম, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক রাশেদ আলী খান, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মিজানুল হক রাজা, আওয়ামী ওলামালীগ সভাপতি নুরুল আজিম, ঈদগড় ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মনিরুল ইসলাম মনির, হাজী নুরুল আলম, ডাঃ আইয়ুব তাহের, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, নিহতের বাবা আব্দুল মাবুদসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।
গত মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) রাত সোয়া দুইটার দিকে উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের মোহাম্মদ শরীফপাড়ায় শিক্ষক মোহাম্মদ নুরুচ্ছাফারকে গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like